আজ ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গাজীপুর গাছা থানাধীন এলাকায় মসজিদের পূর্ণনির্মান রাহেলা নামক মহিলার কাজে বাধা

গাজীপুর মহানগর প্রতিনিধিঃ

গাজীপুর মহানগরের গাছা থানাধীন নির্মাণাধীন মসজিদের কাজ, এক মাদক ব্যবসায়ীর বাধার মূখে বন্ধ। ঘটনাটি ঘটেছে, গত কয়েকদিন পূর্বে গাছা থানার ৩৪ নং ওয়ার্ড ছয়দানা হাজিরপুকুর এলাকায়।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় আব্দুল খালেক (৫৫), আব্দুল মালেক (৩৫) তাদের নিজেদের পৈত্রিক সম্পত্তি ও ক্রয় কৃত সম্পত্তি মসজিদের নামে ওয়াকফ এস্টেট করে দেন। প্রায় ১যুগ আগের মসজিদটি টিনশেড বিল্ডিং করে পাঞ্জেখানা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করে আসছিল এ মসজিদ টিতে।

এলাকার স্থানীয় কাউন্সিলর গণ্যমান্য ব্যক্তিদের পরামর্শক্রমে মসজিদটি ৬ তলা ফাউন্ডেশন করার জন্য, মসজিদটিকে ভেঙ্গে মাটি কেটে গর্ত করে রড বিছিয়ে পিলার উঠানোর জন্য প্রস্তুতি নিলে প্রতিপক্ষ রাহেলা নামে এক নারী এলাকার কিছু দুষ্কৃতী কারি লোকবল নিয়ে মসজিদের কাজ বন্ধ করে দেন।

এতে মসজিদের নির্মানের জন্য আনা সিমেন্ট গুলো জমাট বাদে রড গুলো জং ধরে যাচ্ছে। তাই এলাকাবাসীর দাবি অতি তাড়াতাড়ি যেন মসজিদটির কাজ চালু হয়।

এ ব্যাপারে বাদী রাহেলা বেগমের কাছে মসজিদের কাজ কেনবন্ধ করলেন জানতে চাইলে, তিনি বলেন এ জায়গা আমার, জোর করে আমার জমিতে মসজিদ করতেছে।

মসজিদের মোতোয়াল্লী বলেন, আমরা আমাদের জায়গায় মসজিদ করতেছি। তার পিতার কাছ থেকেও আমরা কিছু জায়গা ক্রয় করেছি সে জায়গা তার পিতা আমাদের নামে রেজিস্ট্রি করে দিয়ে গেছে। এখন মসজিদের জায়গা সে তার নিজের জায়গা বলে দাবি করতেছে।

এ ব্যাপারে গাছা থানার ওসি মোঃ ইসমাইল হোসেন জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে গটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। স্থানিয় কাউন্সিলর সহ উভয়পক্ষ নিয়ে আলোচনা করে যত তাড়াতাড়ী সম্বভ মসজিদ টি নির্মান করে দেওয়া হবে বলে জানান। সাংবাদিক দের এক প্রশ্নের জবাবে, রাহেলার ছেলের বিরুদ্ধে মাদক মামলা রয়েছে বলেও নিশ্চিত করেন তিনি।

এ বিষয়ে, স্থানীয় ৩৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, সাংবাদিক দের জানান, এ মসজিদটি এখানে চলছে প্রায় ১ যুগ যাবৎ, রাহেলার বাবার কাছথেকে মোতোয়ালি পরিবার এ যায়গাটি ক্রয় করে, মসজিদের নামে ওয়কফ্ করে দেন, রাহেলার বাবার মৃত্যুর পর, এ মসজিদের পাশেই তাকে কবর দেয়া হয়, গত দের মাস আগে রাহেলার স্বামীর মৃত্যুর পর তাকেও এখানেই সমাধিত করেন, কিন্তু এখন মসজিদটি পূর্ণনির্মানে হঠাৎ রাহেলা, এসে দাবী করছেন এ জায়গা তার বাবার, এমন কথাবার্তায় এলাকাবাসী ও মুসল্লীদের মনে খোভ বিরাজমান।

তিনি আরো জানান, এই রাহেলার ছেলে একজন মাদক সেবী ও মাদক ব্যবসায়ী, গাছা থানায় তার বিরুদ্ধে মামলাও রয়েছে, আর রাহেলা একজন সুদ ব্যবসায়ী, এহেন কাজ একমাত্র সেই করতে পাড়ে, তবে এ বিষয়ে স্থানীয় ভাবে বসে গাছা থানার ওসি সাহেব কে নিয়ে মিমাংসা করে দেবো। এখানে মসজিদ ছিলো থাকবে।

এলাকাবাসী ও মুসল্লিদের দাবি, ১ যুগ পূর্তি এ মসজিদটি, গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও স্থানীয় কাউন্সিলর এর সহযোগিতায় মসজিদের কাজ যেন খুব তাড়াতাড়ি শুরু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
%d bloggers like this: