আজ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কাথোরা গ্রাম আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত

মোঃ নজরুল ইসলাম (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ

গাজীপুর মহানগরের কাথোরা গ্রাম আওয়ামীলীগের উদ্যোগে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি,বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলায় নিহতদের স্মরণে ও জাতীয় শোক দিবস গতকাল শনিবার কাথোরা মোহাম্মদিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, কোরান খতম,দোয়া মাহফিল, গণভোজের আয়োজন করা হয়েছে। ৩৫নংওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য কাথোরা মোহাম্মদিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি-আব্দুল্লাহ আল-মামুন মন্ডল, এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, গ্রণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ও সদস্য, জাতীয় পরিষদ-বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর আলহাজ মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি,গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক-আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মহিউদ্দিন আহাম্মেদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক, গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলী-আলহাজ্ব মোঃ শহিদ উল্লাহ, গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইসমাইল হোসেন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর (৩৪.৩৫.৩৬) নং ওয়ার্ড মোসাঃ পুস্প আক্তার মায়া।

গাজীপুর মহানগর কৃষকলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক-মোঃ লিটন মোল্লা, গাছা থানা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ শাহাজালাল তরুণ, গাছা থানা কৃষকলীগের সাধারণসম্পাদক মোঃ মনিরুজ্জামান লিটন, কাথোরা মোহাম্মদিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা সুপার- মাওলানা আবু হানিফ, ৩৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী-মোঃ ইকবাল হোসেন মোল্লা, সাবেক ৩৬নং ওয়ার্ড যুবলীগ মোঃ মনির হোসেন, আইনজীবি বাংলাদেশ সুপ্রিমকোট-মোঃ আব্দুল বাতেন, ৩৬নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ মোঃ হেলাল উদ্দিন হেলাল, মোঃ কালাম মাষ্টার, সাবেক ছাত্রলীগের সদস্য মোঃ রুবেল, ৩৬নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ মোঃ হারুন, ৩৬নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ মোঃ আরিফ মন্ডল এল.এল.বি, কাথোরা গ্রাম আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রহমান, অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সাবেক ৩৬ নং ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলাউদ্দিন আলা।

আলোচনা সভা বক্তারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশকে ধবংস করার জন্যই ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট ষড়ষন্ত্রের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের হত্যাকান্ড এবং ২০০৪ সালের ২১আগস্টের হত্যাকান্ড দুটি একই সূত্রে গাঁথা উল্লেখ করে বলেন, দেশী বিদেশী অপশক্তি ও একাত্তরের পরাজিত শক্তি যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা চায়নি এবং যারা বঙ্গবন্ধুকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়েছিল তারাই ষড়যন্ত্রেরমাধ্যমে তাকে হত্যা করেছিল। একইভাবে যাড়া শেখ হাসিনাকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়েছিল,তারাই ২০০৪ সালে আওয়ামীলীগকে নেত্বত্বশূন্য করতে গ্রেনেট হামলা করেছিল।

যারা এ হত্যাকান্ডের সাথে জরিত ছিল তারা রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের মাধ্যমে আইন করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করেছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করেছেন। এর মাধ্যমে জাতি কলঙ্কমুক্ত হয়েছে। এখনও যারা পলাতক রয়েছে তাদেরকে খুজে বের করে আইনের আওতায় এনে,শাস্তির দাবী জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
%d bloggers like this: