আজ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গাজীপুরে বঙ্গবন্ধুর ৪৫ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালিত

মোহাম্মদ আরিফ মৃধা :
\
হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাত বার্ষিকী গাজীপুর মহানগর ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে।

৩৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সৌজন্যে রবিবার মহানগরের মোল্লা কনভেনশন সেন্টারে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। মহানগরী ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সামশুল খন্দকার অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন মহ ,মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য এসএম শামীম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উল্লাহ,৩৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব আব্দুল্লাহ আল মামুন মন্ডল সহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব জাহিদ আহসান রাসেল বলেন,১৯৭৫ সালের ১৫ই আগষ্ট বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের নির্মম হত্যাকান্ডের মধ্য দিয়ে এদেশের স্বাধীনতা ও বাংলাদেশ কলঙ্কিত করেছে খুনির। উচ্চাভিলাষী, বিপথগামী সামরিক ও বেসামরিক যে সমস্ত খুনিরা সেদিন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল তারা ইতিহাসে চিরকালই ঘৃণিত হবে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে ঘাতকরা চেয়েছিল এদেশ থেকে আওয়ামী লীগ তথা বঙ্গবন্ধুর পরিবারের নাম মুছে দিতে। কিন্তু বাংলাদেশ তথা বাংলার মাটি মানুষের সাথে বঙ্গবন্ধুর নাম মিশে রয়েছে।

সেটি কোনো মতেই কোন শক্তি কোনদিনও মুছে ফেলতে পারবে না। জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন বাংলাদেশকে একটি স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলতে। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে সেটি সম্ভব হতো।। কিন্তু বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পরবর্তী সরকারগুলো বাংলাদেশের জন্য কাজ করেনি। অধিকাংশ সময়ই নোংরা রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল বলেই বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পারেনি। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। তার এই উন্নয়ন, অগ্রযাত্রাকে কোনো অপশক্তি দমিয়ে রাখতে পারবে না।

তাই তিনি সকলকে শেখ হাসিনার উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় সমর্থন দেওয়ার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে বক্তারা বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারসহ ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার বিচার বাংলার মাটিতে যেন হয় সে ব্যাপারে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ আল মামুন মন্ডল বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন সাধারণ মানুষের নেতা। তিনি চাইলে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে পারতেন। কিন্তু তিনি তা না হয়ে সাধারণ মানুষের কাছে থেকে সাধারণ মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য তিনি আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। তাই বারবার তাকে জেল জুলুম নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে বাংলাদেশের সকল উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে সেদিন নষ্ট করে দিয়েছে খুনিরা।

তাই খুনিদের মধ্যে এখনো যাদের বিচারের সম্মুখীন করা যায়নি অচিরেই তাদেরকে ধরে এনে বিচারের মুখোমুখি করার জন্য আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা ইসমাইল হোসেন ও বাবুল মন্ডল। অনুষ্ঠান শেষে ১৫ই আগস্ট শাহাদাতবরণকারী সকল শহীদদের জন্য দোয়া করা হয় এবং অসহায, দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
%d bloggers like this: