আজ ৯ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গাজীপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে ফগার মেশিনের উদ্বোধন করলেন সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলম

মোঃ আরিফ মৃধাঃ 

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস মানুষের জন্য যেমন আতঙ্কের বিষয় তেমনি গাজীপুর সিটি বাসীর জন্য আতংকের অপর নাম ডেঙ্গু। নগরে ইতিমধ্যেই মশার ব্যাপক উপদ্রব দেখা দিয়েছে।যার কারণে সামনে ডেঙ্গু জ্বর দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এরই পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবে নগর পিতা আলহাজ্ব এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম ডেঙ্গু মশার বিরুদ্ধে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছেন।

তারই অংশ হিসেবে শনিবার সকালে নগরীর টঙ্গী এলাকায় প্রায় ১৫০ টি ফগার মেশিন এর কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এছাড়া নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে উক্ত ফগার মেশিন গুলো দ্বারা স্প্রে করা হবে যাতে করে ডেঙ্গু মশার উপদ্রব  বাড়তে না পারে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, জার্মানি থেকে আমদানিকৃত ফগার মেশিনগুলো মশা নিধনে খুবই কার্যকর। এসময় মেয়র বলেন, সিটি তে বসবাসকারী প্রতিটি নাগরিকের সুরক্ষার প্রতি তার নিজেকেই মনোযোগ দিতে হবে। সকলে মিলেমিশে শহরটাকে পরিষ্কার রাখতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের শহর আমরাই রাখবো পরিষ্কার। উল্লেখ্য গেল বছর ডেঙ্গু মশার কারণে ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে ঢাকা সিটি সহ গাজীপুর ও অন্যান্য এলাকায় অধিকাংশ মানুষ হাসপাতালে ভর্তি ছিল ও প্রাণহানি ঘটেছিল। এরই ধারাবাহিকতায় এবারও যাতে ডেঙ্গু মশা বাহিত ডেঙ্গু জ্বর ও চিকুনগুনিয়া মানুষের মাঝে বিস্তার লাভ না করতে পারে সেজন্য গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম ইতিমধ্যেই ব্যাপক প্রস্তুতি হাতে নিয়েছেন। যাতে করে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব না হতে পারে। সেজন্যই তিনি এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। এমনিতেই সারাবিশ্বে করুনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানুষ করোনার কারণে আজ দিশেহারা। তারপর যদি আবার মরার উপর খাঁড়ার ঘায়ের মত ডেঙ্গু মানুষকে পেয়ে বসে তাহলে দুর্ভোগের শেষ থাকবে না।

এ বিষয়টি মাথায় রেখে মেয়র শনিবার টঙ্গী থেকে ফগার মেশিন দিয়ে মশা নিধন  উদ্বোধন করেছেন। মেয়র বলেন নগরীর৫৭ টি ওয়ার্ডের মাঝেই আমরা এই মেশিন গুলো সরবরাহ করব এবং যাতে করে মশার বিস্তার ঘটতে না পারে তার জন্য অবশ্যই আমরা সোচ্চার আছি। নগরে বসবাসকারী প্রত্যেকটি মানুষকে এ বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। বাড়ির আঙ্গিনা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। যাতে করে ডেঙ্গু মশার বিস্তার ঘটতে না পারে। পুরাতন টায়ার যেখানে সেখানে ভাঙ্গা পাত্র, ফেলে রাখলে সেখানে পানি জমে সেই পানিতেই ডেঙ্গু মশা ডিম পাড়ে এবং তাদের বংশ বৃদ্ধি বিস্তার লাভ করে। সুতরাং এসব ব্যাপারে নগরবাসীকে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

বাড়িতে ফুলের টব রাখলে সেখানে যাতে করে পানি না জমে সেদিকে অবশ্যই নজর রাখতে হবে। অর্থাৎ মানুষের সচেতনতাই পারে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করতে। মেয়র বলেন তাই আসুন আমরা  সচেতনতার মাধ্যমে আমাদের নগর টাকে পরিষ্কার রাখি এবং একটি সুন্দর পরিকল্পিত সবুজ নগর গড়ে তুলি। মশক নিধন অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সিটি কর্পোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেট, নির্বাহী কর্মকর্তা সহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। এছাড়াও আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
%d bloggers like this: