আজ ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নান্দাইল পৌর মেয়র রফিক ভুইয়া বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগে ৯ কাউন্সিলরের সংবাদ সম্মেলন

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি .ঃ

ময়মনসিংহের নান্দাইল পৌরসভার মেয়র মো. রফিক উদ্দিন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে করোনায় সরকারি বরাদ্দকৃত অনুদান ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ সহ পৌর উন্নয়ন কার্যক্রমের ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগে সোমবার পৌর সদরে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

পৌরসভার বর্তমান তিন প্যানেল মেয়র ও ছয় কাউন্সিলর সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে অভিযোগ উত্থাপন করেন যে, মেয়র রফিক উদ্দিন ভুইয়া পৌরসভার উন্নয়ন কাজের এডিপি, নগর উন্নয়ন প্রকল্প ও জাইকা প্রকল্পের কাজে সীমাহীন অসংখ্য অনিয়ম, দূর্নীতি, স্বজনপ্রীতি ও নির্বাচিত কাউন্সিলরবৃন্দদের বাদ দিয়ে এককভাবে পৌর কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছেন।

কাউন্সিলর গণ আরও জানান, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রন ও সাম্প্রতিকালে ভয়াবহ করোনা ভাইরাস জনিত কারনে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দকৃত অনুদান কাউন্সিলরগণদেরকে অবহিত না করে একক ভাবে নাম মাত্র কিছু কাজ করে পৌর মেয়র বাকি সকল বরাদ্দ আত্মসাতের পায়তারা করে যাচ্ছে। তাই কাউন্সিলরদেরকে কোন ধরনের সঠিক হিসাবে দিতে রাজি নন। এতে করে পৌর বাসিন্দারা সেসমস্ত সরকারি সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এছাড়া পৌর মেয়র নিজে, তার ভাই, ভাতিজা ও নিজ পুত্রের মাধ্যমে পৌরসভার সকল টেন্ডার নিয়ন্ত্রন ও পরিচালনা করে থাকেন বলে উন্নয়ন কাজের মান নিম্মমানের হচ্ছে বলে কাউন্সিলরগণ জানান।

পৌরসভার প্যানেল মেয়র রেজাউল করিম ভুইয়া রিপন ও শাহ আলম হেলিম মাহিন জানান, পৌর মেয়র পৌরসভার হাটবাজার, বাসাবাড়ির প্রাপ্ত ট্যাক্স ও যান্ত্রিক রোলার থেকে প্রাপ্ত আয়ের কোন ধরনের হিসাব-নিকাশ সুুষ্ঠুভাবে সংরক্ষন করেনা। যেনতেনভাবে আয়ের খাতগুলো ধ্বংস করে দিচ্ছেন। তারা আরও জানায়, বিগত ৪ বছরে সরকারি বিধি মোতাবেক কোন ধরনের বাজেট ঘোষণা করেন নাই। পৌরসদরের সুশীল সমাজ/কাউন্সিলরগণ বাজেটের প্রস্তাবিত আয়-ব্যয়ের বিষয়ে কোন মতামত প্রদান করতে পারে নাই।

এছাড়া জাইকা প্রকল্প থেকে দেওয়া জিপ গাড়িটি ও পৌরসভার মোটরসাইকেল নিজ পরিবারের লোকজন ব্যবসায়িক ও ভ্রমণের কাজে ব্যবহার করে যাচ্ছেন। এরপূর্বেও মেয়র রফিক উদ্দিন ভূইয়া ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির কারনে পৌরসভার দায়িত্ব থেকে বহিষ্কৃত করা হয়েছিল বলে কাউন্সিলরগণ অভিযোগে উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় বরাবর সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে অনাস্থা জ্ঞাপন করে অনুলিপি প্রেরন করেছেন। উক্ত অনিয়ম দূর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় ওয়ার্ড কাউন্সিলর খায়রুল ইসলাম মানিককে মেয়রের পুত্র অপু হুমকী প্রদান করে।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা ও উপজেলায় কর্মরত প্রায় ৩০/৩৫জন ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
%d bloggers like this: