আজ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অসহায় মানুষের দিকে হাত বাড়িয়ে দিলেন কৃষকলীগ নেতা জুম্মন খান

আরিফ মৃধা

করোনা ভাইরাস মরণঘাতী এক রোগের নাম। যে ভাইরাসটি আসলে খালি চোখে দেখা যায় না। অথচ সারা বিশ্বকে কাঁপন সৃষ্টি করে দিয়েছে ক্ষুদ্র এই ভাইরাসটি। সারাবিশ্বের মানুষ আজকে গৃহবন্দী। এক বিভীষিকাময় আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে মানুষ। 

ঘর থেকে বের হতে পারছেম না। রোজগার করতে পারছেন না।সম্পদশালী ব্যক্তিরা যদিও কিছুটা হলেও অর্থের বিনিময়ে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনতে পারছেন।
 কিন্তু অসহায় দরিদ্র মানুষগুলো টাকার অভাবে ত্রাণসামগ্রী কিনতে পারছেন না। যার ফলে পরিবার-পরিজন নিয়ে অতি কষ্টে তাদের দিনাতিপাত করতে হচ্ছে। সরকারি সাহায্য যথেষ্ট পরিমাণে অব্যাহত থাকলেও সঠিক ব্যবস্থাপনার অভাবে সকলের নিকট তা পৌঁছাচ্ছে না সঠিকভাবে।
 তাই অনেক ক্ষেত্রেই নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের বাঁচানোর কথা চিন্তা করে অনেকেই সাহায্যের আশায় এদিক-সেদিক ছোটাছুটি করছেন।
 অসহায়৷ এই মানুষ গুলোর কথা চিন্তা করেই বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন দলের নেতাকর্মী, বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন, হৃদয়বান ব্যক্তিবর্গ অসহায়-দুস্থদের দিকে হাত বাড়িয়ে দিয়েছে।
  যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী তারা অসহায় খেটে খাওয়া মানুষদের সাহায্য করে যাচ্ছেন।
এরই অংশ হিসেবে তারুণ্যের প্রতীক গাজীপুর মহানগর, গাছা থানার কৃষকলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সংগঠক জুম্মন খান শনিবার ৪ এপ্রিল অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে তার নিজস্ব উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।এসময় তিনি সাধ্যমত আগামীতেও  দরিদ্র মানুষের পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, এই করোনা একটি যুদ্ধ।সুতরাং  এই যুদ্ধে আমাদের জিততে হবে।আর এরজন্য দরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী প্রতিটি মানুষকে নিয়ম মেনে ঘরে থাকা।
 আমরা যদি ঘরে থাকি, বিনা প্রয়োজনে যদি ঘরের বাহিরে না যাই, তবেই করোনা  নামক এই যুদ্ধে জয়লাভ করতে পারব ইনশাল্লাহ।
অপ্রয়োজনে যাতে কেউ ঘরের বাহিরে না যায় তার জন্য তিনি সমাজের সচেতন মহল, বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীসহ  প্রত্যেকেই অনুরোধ করেন।
 যাতে করে এ বিষয়টি মেনে চলে তার প্রতি তিনি নিজেও সচেতন এবং সকলকে সচেতন হওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। তিনি বলেন, আমি নিজেও এই নির্দেশনা গুলো মেনে চলছি এবং অন্যারা যাতে মেনে চলে সেদিকেও আমি দৃষ্টি রাখছি। সুতরাং সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করব। শতভাগ হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলব।
 তবেই আমরা করোনা থেকে রক্ষা পাবো ইনশাল্লাহ।
আর আমরা যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী দুস্থ অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াবো। যাতে করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী একটি মানুষ ও না খেয়ে থাকে সে ব্যাপারে সকলে দৃষ্টি রাখব এমনটিই প্রত্যাশা করেন কৃষক লীগ নেতা জুম্মন খান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
%d bloggers like this: