আজ ২৭শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে তাহমীনা নামের এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে গফরগাঁও থানা পুলিশ

রাকিবুল হাসান আহাদ,বিশেষ প্রতিনিধিঃ

নিহত স্কুল ছাত্রীর পরিবারের দাবি গণধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে দুর্বৃত্তরা।গফরগাঁও উপজেলার যশরা ইউনিয়নের পূর্ব আঠারদানা গ্রামে সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।নিহত তাহমীনা যশরা ইউনিয়নের পূর্ব আঠারদানা গ্রামের আব্দুল মতিনের মেয়ে স্থানীয় বিদ্যালয় হতে গত বছর এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়।

শিক্ষার্থীর পিতা আব্দুল মতিন জানান, আমার এক ছেলে তিন মেয়ে। মেয়েদের মাঝে তাহমীনা বড়। ছেলেটি গত আড়াই মাস আগে জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করে।

তিনি বলেন, সোমবার রাতের খাবার খেয়ে তাহমিনা ও তার ছোট বোন সুমাইয়া ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে ফজরের নামাজের পর পাড়াভরট জামে মসজিদের দক্ষিণে কবরস্থানের পাশে জামগাছে একটি লাশ ঝুলতে দেখে মুসল্লীরা আমার বাড়ীতে খবর দেয়। আমার বাড়ী থেকে ৩০০মি দূরে জাম গাছে এসে দেখি আমার মেয়ের
ঝুলন্ত লাশ। কে বা কারা আমার মেয়ের উপর পাশবিক নির্যাতন করে হত্যা করে লাশটি গাছে ঝুলিয়ে রাখে। লাশের পাশে আমার মেয়ের ব্যবহৃত মোবাইল সেটিও পরে আছে।সুষ্ঠু তদন্ত করে ঘটনার সঠিক বিচার দাবী করছি।

ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম রিয়েল বলেন খবর পেয়ে আমি সকালেই ঘটনাস্থলে আসি। পরিবারের অভিযোগ, মেয়েটিকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

গফরগাঁও থানার ওসি অনুকূল সরকার জানান, ঘটনাস্থল এস আই আহসান হাবিব ও জাকির হোসেন পরিদর্শন করেছেন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর ধর্ষণ ও মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
%d bloggers like this: